প্রাণের ৭১

সোমবার, মে ২০th, ২০১৯

 

আইফেল টাওয়ার পর্যটকদের জন্য সাময়িক ভাবে বন্ধ।

আইফেল টাওয়ারে পর্যটক প্রবেশ ফ্রান্সের অন্যতম  সেরা পর্যটন কেন্দ্র প্যারিসের আইফেল টাওয়ার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সোমবার (২০ মে) বিকেলে এক অনু্প্রবেশকারী লোহার তৈরি বিশাল এ স্থাপনা বেয়ে ওঠার চেষ্টা করেন। এরপর থেকেই দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয় ঐতিহ্যবাহী আইফেল টাওয়ার।   পুলিশ জানিয়েছে, আরোহণ বিশেষজ্ঞসহ ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। তারা অনুপ্রবেশকারীর সঙ্গে কথা বলেছেন।   তবে, ওই ব্যক্তি কত উঁচুতে উঠেছিলেন ও তার উদ্দেশ্য কী তা জানা যায়নি।   এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিক কোনো বিবৃতি দেয়নি। আইফেল টাওয়ার কবে নাগাদ খোলা হবে, তাও জানানো হয়নি।  আরো পড়ুন


চরমোনাই পীরের মাহফিলে গিয়ে জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ : র‌্যাব

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ্ বাংলা টিমের দুই সক্রিয় সদস্যকে নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। এ সময় তাদের কাছ থেকে ল্যাপটপসহ বিপুল পরিমাণ উগ্রবাদী বই ও লিফলেট উদ্ধার করা হয়। তাদের একজন জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হওয়ার কারণ হিসেবে চরমোনাই পীরের মাহফিল এবং ফেসবুক-ইউটিউবের বিভিন্ন উগ্রবাদী কন্টেন্টের কথা উল্লেখ করেছে র‍্যাবের কাছে।   রবিবার (২০ মে) রাত ১১টার দিকে জেলার ফতুল্লা মাসদাইর ভূঁইয়ার বাগ এলাকা থেকে আবু সাঈদ (২৪) ও এসএম মাহাদী হাসান ওরফে গোলাম রাব্বী (২৬)-কে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। আবু সাঈদের বাড়ি মুন্সিগঞ্জ টঙ্গীবাড়ি থানায় এবং গোলাম রাব্বীর বাড়ি বরিশালের গৌরনদীতে।আরো পড়ুন


উস্কানিমূলক বক্তব্যের জন্য ধর্ষণ বেড়েছে

ধর্ষণের ব্যাপকতার পেছনের অন্যতম একটি কারণ ধর্মীয় ওয়াজ-মাহফিলে নারীবিদ্বেষী বক্তৃতা। বিভিন্ন সময় মাহফিলে নারীদের পোশাক নিয়ে উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়া হয়। এ ছাড়া অপরাধীর শাস্তি না হওয়াও ধর্ষণ বৃদ্ধির অন্যতম কারণ। এক্ষেত্রে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নির্লিপ্ততাও দায়ী। আইন যদি কঠোরভাবে প্রয়োগ না করা হয়, যদি ধর্ষণের শিকার নারী বিচার না পান, সেক্ষেত্রে ধর্ষণ কমবে না।   আজ অবধি ধর্ষণের ঘটনার সঠিকভাবে সুরাহা করে দোষী ব্যক্তিকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে দেখা যায়নি। তাই অপরাধীরা মনে করে, অন্যায় করে পার পেয়ে যাওয়া যায়। এ ছাড়া যখনই কোনো ঘটনা ঘটে, তখনই এক পক্ষ সবাইকে বোঝানোরআরো পড়ুন