Main Menu

কাশ্মীরের স্বাধীনতাকামী নেতাদের নিরাপত্তা তুলে নিচ্ছে ভারত।

জম্মু-কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী তথা স্বাধীনতাকামী নেতাদের আর কোনো নিরাপত্তা দেবে না ভারত সরকার। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে এমন ঘোষণা এসেছে।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভয়াবহ আত্মঘাতী হামলায় সিপিআরএফের কমপক্ষে ৪৪ সদস্য নিহত হওয়ার তিনদিন পর মোদি সরকারের তরফ থেকে এমন পদক্ষেপ নেয়া হলো।
বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং পরিবহন সুবিধা তুলে নেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, পাকিস্তান এবং দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের কাছ থেকে অর্থ সহযোগিতা পায় এমন লোকজনের নিরাপত্তার বিষয়টি অতি দ্রুত পর্যালোচনা করা হবে।

ইতোমধ্যেই জম্মু-কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্টের নেতা মীরওয়াইজ উমর ফারুকের নিরাপত্তা তুলে নেওয়া হয়েছে। তিনি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের যৌথ সংগঠন অল পার্টি হুরিয়ত কনফারেন্সের অন্যতম নেতা।

সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, বিচ্ছিন্নতাবাদী মীরওয়াইজ বরাবরই কাশ্মীরের স্বাধীনতা নিয়ে মন্তব্য করে আসছেন। হুরিয়ত কনফারেন্সের অন্যান্য নেতাদেরও নিরাপত্তা দ্রুত তুলে নেওয়া হচ্ছে।

তারা যেসব সরকারি সুযোগ পান সেটাও তুলে নেওয়া হবে।
মোট পাঁচজন বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতার ওপর থেকে এই নিরাপত্তা তুলে নেওয়া হয়েছে। মীরওয়াইজ উমর ফারুকের পাশাপাশি বাকি চারজন হলেন, আবদুল গানি ভাট, বিলাল লোন, হাসিম কুরেশি এবং সাবির শাহ। কোনও অবস্থাতেই তাদের আর কোন নিরাপত্তা দেওয়া হবে না বলেও নির্দেশিকা জারি হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*