Main Menu

সৎ মায়ের দেওয়া আগুনে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে শিশু রিফাত

কুমিল্লায় সৎ মায়ের দেওয়া আগুনে ঝলসে গেলো আট বছরের শিশু রিফাত। আগুনে সারা শরীর ঝলসে গিয়ে অবশিষ্ট রয়েছে শুধু শিশুটির মুখ। সে এখন যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন রিফাতের শরীরের ৮০ শতাংশ আগুনে ঝলসে গেছে। শিশু রিফাত জেলার বরুড়া উপজেলার জলম ইউনিয়নের চিতড্ডা গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কয়েক বছর আগে রিফাতে মা তার বাবাকে ডিভোর্স দেয়। পরে তার বাবা চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার রহিমানগর গ্রামের বাচ্চু মিয়ার মেয়ে খোদেজা বেগমকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন।সৎ মা রিফাতকে বিভিন্ন সময়ে নির্যাতন করে আসছিলেন। চাকরির কারণে তারা জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার বাগমারা এলাকায় আনোয়ার হোসেনের বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করেন।

গত সোমবার বিকালে সৎ মা খোদেজা বেগম রিফাতকে ঘরের ভেতর রশি দিয়ে বেঁধে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। শিশুটির চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে ভর্তি করে।পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

আরো পড়ুন: ভারতে না গিয়েই দেশে ফিরলেন সৌদি যুবরাজ

সদর দক্ষিণ মডেল থানার পরিদর্শক মো. তফাজ্জল হোসেন জানান, এ ঘটনায় বাড়ির মালিক আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে মঙ্গলবার সকালে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। শিশুর বাবা ও সৎ মাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*