প্রাণের ৭১

জুন, ২০১৮

 

শানে রেসালাতে আঘাত, প্রতিবাদ করতে হবে, শানে রেসালাতে অবমাননা – সহ্য করা হবে না -আল্লামা ইমাম হায়াত আলাইহে রাহমা

নেদারল্যান্ডের জিয়ার্ট উইল্ডার্স কর্তৃক সত্য ও মানবতার মুক্তির উৎস মহান শানে রেসালাতে ব্যঙ্গচিত্র অবমাননার প্রতিবাদে বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লব, বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর শাখার উদ্যোগে ঢাকা প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গনে আজ এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বস্তুর উর্ধ্বে মানবসত্তার প্রবক্তা এবং বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবের প্রবর্তক ইমাম হায়াত এর দিক নির্দেশনায় অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন জনাব আরেফ সারতাজ।


গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ১৬তে ব্রাজিল। প্রতিপক্ষ মেক্সিকো।

দারুণ ফুটবল খেলছে ব্রাজিল। ছন্দময় ফুটবল উপহার দিচ্ছেন নেইমার-কুতিনহো-পাওলিনহোরা। সাফল্যও আসছে। এবার ২-০ গোলে এগিয়ে গেল পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। তাদের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন থিয়াগো সিলভা। ন্যূনতম ড্র হলেই দ্বিতীয় রাউন্ডে পা রাখবে ব্রাজিল। তবে জিততেই হবে সার্বিয়াকে। এমন সমীকরণ নিয়ে মস্কোর স্পার্তাক স্টেডিয়ামে খেলতে নামে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। আক্রমণাত্মক সূচনা করে তারা। সূচনালগ্ন থেকেই ছন্দে নেইমাররা। একের এক আক্রমণে সার্বিয়াকে ব্যতিব্যস্ত রাখেন তারা। প্রথম সুযোগ আসে ২৫ মিনিটে। গোলপোস্ট বরাবর বাঁ পায়ে শট নেন নেইমার। তবে প্রাণভোমরার জোরালো শট অসামান্য দক্ষতায় রুখে দেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক ভ্লাদিমির স্টোজকোভিচ। নেইমার-কুতিনহো-পাওলিনহোদের পায়ে ফুটল ফুটবলের শৈল্পিকআরো পড়ুন


মিয়ানমার সব মানতে চায়, কেবল রোহিঙ্গা নাগরিকত্ব বাদে। : রয়টার্স।

পর্যায়ক্রমে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর নাগরিকত্ব নিশ্চিত করাকেই রাখাইন সংকট সমাধানের পথ বলে উল্লেখ করা হয়েছিল কফি আনান কমিশনের প্রতিবেদনে। তবে রয়টার্সের এক বিশেষ অনুসন্ধান থেকে জানা গেছে, মিয়ানমার আনান কমিশনের অধিকাংশ সুপারিশ বাস্তবায়নে রাজি থাকলেও সহসা নাগরিকত্ব নিশ্চিতের পদক্ষেপ শুরু করছে না। নাগরিকত্ব নিশ্চিতের পথে ১৯৮২ সালে প্রণীত নাগরিকত্ব আইনকে বাধা হিসেবে শনাক্ত করেছিল আনান কমিশন। আইনটি সংশোধনের আবশ্যিকতা তুলে ধরা হয়েছিল কমিশনের প্রতিবেদেন। তবে রয়টার্সের বিশেষ অনুসন্ধান থেকে জানা গেছে, গত ৮ জুন ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে মিয়ানমারের সমাজকল্যাণমন্ত্রী উয়িন মিয়াত পশ্চিমা কূটনীতিকদের জানিয়ে দিয়েছেন, সহসা নাগরিকত্ব আইন সংশোধনেরআরো পড়ুন


সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রতিদিন ঘুম কতটা জরুরি।

রাজনৈতিক নেতা কিংবা শীর্ষ ব্যবসায়ীদের প্রায়শই গর্ব করে বলতে শোনা যায়, তারা কতটা কম ঘুমান। যেন তাদের মধ্যে কম ঘুমানোর প্রতিযোগিতা চলছে। কম ঘুমানো নিয়ে এত বড়াই করার কিছু নেই। কারণ ঘুমের অভাব আমাদের শরীর আর মস্তিস্কের ওপর নাটকীয় প্রভাব ফেলে। ম্যাথিউ ওয়াকার হচ্ছেন নিউরোসায়েন্স এন্ড সাইকোলজির প্রফেসর, পড়ান যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ক্যালোফোর্নিয়া, বার্কলেতে। ‘কেন আমরা ঘুমাই’ বলে একটা বই লিখেছেন তিনি। তার দাবি, এই বইটি আপনার জীবন পাল্টে দিতে পারে। ম্যাথিউ ওয়াকার জানেন যে আধুনিক মানুষকে প্রতিদিনের ব্যস্ত জীবনে অল্প সময়ের মধ্যে অনেক কাজ করতে হয়। ঘুমানোর সময় নেই।আরো পড়ুন


চট্টগ্রামে হেপাটাইটিস ‘ই’ কতটা চিন্তার?

বাংলাদেশের বন্দরনগরী চট্টগ্রামের হালিশহর এলাকায় পানিবাহিত রোগ, বিশেষ করে হেপাটাইটিস ই সংক্রান্ত রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে সেখানকার বাসিন্দাদের মধ্যে। প্রায় দেড় মাস আগে থেকে হালিশহর এলাকায় পানিবাহিত নানা ধরনের রোগ ছড়াতে শুরু করে। জন্ডিস, টাইফয়েডসহ এসব পানিবাহিত রোগের পাশাপাশি হেপাটাইটিস ই’ এর সংক্রমণ হচ্ছে- এরকম ধারনা থেকে আতঙ্ক সৃষ্টি হয় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। হেপাটাইটিস ই সংক্রমণের তথ্য নিশ্চিত করেন চট্টগ্রাম জেলার সিভিল সার্জন আজিজুর রহমান সিদ্দিকী। তিনি বলেন, “হেপাটাইটিস ই সংক্রমণ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। ঢাকা থেকে আসা টিম এবং এখানকার প্যাথলজিকাল সেন্টারে হালিশহর এলাকার যত রক্তেরআরো পড়ুন


দক্ষিন কোরিয়ায় পর্ন সাইটের মালিক গ্রেফতার।

কুখ্যাত এই পর্ন সাইটটি ২০১৬ সালে নিষিদ্ধ করা করা হয়। সোরা.নেট নামে ঐ সাইটে ১০ লক্ষের বেশি ব্যবহারকারী ছিল। আর সেখানে হাজার হাজার ভিডিও ছিল যেখানে ভিডিওতে থাকা নারীদের কোন অনুমতি নেয়া হয় নি। এমনকি অনেক ক্ষেত্রে তারা জানতেন না যে ভিডিও ধারণ করা হয়েছে। কোরিয়ার পুলিশ বলছে ওয়েবসাইটটির মালিক অবৈধ যৌনপল্লী এবং জুয়া খেলার বিজ্ঞাপন ঐ সাইটে ব্যবহার করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করেছে। কিন্তু সন্দেহভাজন এই নারী যার নামের শেষের অংশ সং তিনি এই দোষ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেছেন সাইটের যারা ব্যবহারকারী তারাই অবৈধ এসব ভিডিও তৈরি করেছে। দক্ষিণআরো পড়ুন


বিদেশীদের জন্য ঢাকা কেন এতো ব্যয়বহুল নগরী।

ব্রাসেলস, বার্লিন, বার্সেলোনা। অথবা ধরা যাক ডালাস, দিল্লি বা দোহা। জীবনযাত্রার ব্যয় হিসেব করলে এসব নগরীর তুলনায় ঢাকা নগরীর অবস্থান কোথায়? অন্তত বিদেশিদের জীবনযাত্রার খরচ যদি ধরেন, তাহলে ঢাকা নগরী এদের সবার উপরে, অর্থাৎ ঢাকা অনেক বেশি ব্যয়বহুল নগরী। মার্কার নামের একটি সংস্থা আবারও বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল নগরীগুলোর তালিকা প্রকাশ করেছে। ২০৯টি নগরীর সেই তালিকায় বিশ্বের অনেক উন্নত এবং ধনীদেশের বড় বড় নগরীকে পেছনে ফেলে ঢাকার অবস্থান ৬৬ নম্বরে। বাংলাদেশের মতো একটি অনুন্নত এবং পিছিয়ে থাকা অর্থনীতির একটি দেশের রাজধানী শহর কেন এতটা ব্যয়বহুল? সেই প্রশ্নের উত্তর খোঁজার আগে একআরো পড়ুন


সৌদি নারীদের ড্রাইভিং। কতটা বদলেছে দৃষ্টিভঙ্গি?

সৌদি আরবে নারীদের গাড়ি চালানোর বৈধতা দেয়ার পর অনেক নারীই গাড়ি চালানো শিখছেন। রাজধানী রিয়াদের বাইরে প্রিন্সেস নোরা ইউনিভার্সিটির উদ্দেশ্যে গাড়িতে করে যাত্রা শুরু করেছেন ড্রাইভিং প্রশিক্ষণরতএক নারী। সাথে রয়েছেন তাঁর প্রশিক্ষক। প্রশিক্ষক নিজেও একজন নারী এবং দীর্ঘদিন ব্রিটেনে বসবাস করেছেন। সে নারী তাঁর প্রশিক্ষককে জিজ্ঞেস করলেন, যে তিনি ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার বেগে গাড়ি চালাতে পারেন কিনা? প্রশিক্ষক বলেন. তিনি ৪০ কিলোমিটার বেগে চালাতে পারেন। কিন্তু ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটারের বেশি নয়। রাজধানী রিয়াদের একটি গাড়ির শো-রুমে ব্যবসায়ী নাজিয়া আল হাজা সবচেয়ে আধুনিক গাড়িটি দেখছিলেন। তিনি বড় আকারের একটি গাড়ি কিনতেআরো পড়ুন


কতদূর যেতে পারবে আর্জেন্টিনা?

নাইজেরিয়ার বিপক্ষে দারুণ জয় নিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব নিশ্চিত করল আর্জেন্টিনা। দিনের অন্য ম্যাচে আইসল্যান্ড ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে হারায় কোনো সমীকরণের মুখোমুখি হতে হয়নি আলবিসেলেস্তেদের। সেন্ট পিটার্সবার্গে ১৪ মিনিটের মাথায় মেসির গোলে এগিয়ে গেলেও বিরতির পর ৫১ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি পেয়ে সমতায় ফেরে নাইজেরিয়া। ৮৬ মিনিটের মাথায় আর্জেন্টিনার ত্রাণকর্তা হয়ে অসাধারণ গোল করে দলটিকে নক আউট পর্বে নিয়ে যান মার্কোস রোহো। প্রথমার্ধ শেষে ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে গিয়েছেন আর্জেন্টাইনরা। গ্রুপ পর্বের প্রথম ২ ম্যাচে কোন গোল করতে পারেননি মেসি। আর্জেন্টিনাও পায়নি কাঙ্ক্ষিত জয়। নাইজেরিয়ার বিপক্ষে করা এ গোলটিই রাশিয়াআরো পড়ুন


যেভাবে জন্ম হলো আওয়ামী লীগের

জাতির পিতার অসমাপ্ত আত্মজীবনী এক অনবদ্য দলিল। এই অসামান্য গ্রন্থের ১১৯ থেকে ১২১ পৃষ্ঠায় আওয়ামী লীগের জন্মের পূর্বাপর তুলে ধরেছেন বঙ্গবন্ধু। আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষীকিতে জাতির পিতার সম্মানে লেখার ওই অংশটুকু তুলে ধরা ধলো- ১৯৪৭ সালে যে মুসলিম লীগকে লোকে পাগলের মত সমর্থন করছিল, সেই মুসলিম লীগ প্রার্থীর পরাজয়বরণ করতে হল কি জন্য? কোটারি, কুশাসন, জুলুম, অত্যাচার এবং অর্থনৈতিক কোন সুষ্ঠু পরিকল্পনা গ্রহণ না করার ফলে। ইংরেজ আমলের সেই বাঁধাধরা নিয়মে দেশ শাসন চলল। স্বাধীন দেশ, জনগণ নতুন কিছু আশা করেছিল, ইংরেজ চলে গেলে তাদের অনেক উন্নতি হবে এবং শোষণ থাকবেআরো পড়ুন