প্রাণের ৭১

বুধবার, নভেম্বর ২১st, ২০১৮

 

ড. কামাল হোসেনে’র বুদ্ধিজীবি ফ্রন্ট।।আবদুল গাফফা্র চৌধুরী।।

আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীঃঃ–ব্যক্তিগত জীবনের নানা সমস্যার মধ্যে আছি। আশিঊর্ধ্ব জীবনে শরীর এবং স্বাস্থ্যও ভাল নয়। লন্ডনে হঠাৎ বেজায় শীত পড়েছে। তাতেও কাবু হয়ে আছি। তারপরও ঢাকার একটি কাগজে একটি খবর দেখে খুব মজা পেয়েছি। শেরে বাংলা একবার বলেছিলেন, ‘রাজনৈতিক সার্কাসের চাইতে বড় সার্কাস আর কিছু হয় না।’ কথাটা যে কতটা সত্য ঢাকার কাগজের একটি খবরের হেডিং দেখে তার প্রমাণ পেলাম। ১৩ নবেম্বরের ডেট লাইন দেয়া খবরটির হেডলাইন হলো, ‘১০ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে নির্বাচনে সম্পৃক্ত করতে চান ড. কামাল, বিএনপিকে চিঠি।’ এই খবরটা পড়েই খুব মজা পেয়েছি। খবরে বলা হয়েছে, ‘বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদআরো পড়ুন


ঐক্যফ্রন্ট নেতাকর্মিদের নামে ফৌজদারী মামলার তালিকা ইসিতে।।

রুহুল আমিন মজুমদারঃ-রাষ্ট্রদ্রোহিতা,সরকারের বিরুধীতা এক নয়। রাজনৈতিক দলের সাংবিধানিক অধিকার নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন-সংগ্রাম–রাজনৈতিক দলের সাংবিধানিক অধিকারের নামে ‘আন্দোলন-সংগ্রামে’ দলবদ্ধ সন্ত্রাস পরিচালনাও এক নয়। রাজনৈতিক কর্মসূচি প্রতিপালনকালীন ফৌজদারী মামলা এবং রাজনৈতিক কারনে হয়রানীমূলক মামলাও এক বিষয় নয়। রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী যেমন বাংলাদেশের নাগরিক, রাজনীতিহীন সাধারন মানুষও বাংলাদেশের নাগরিক। আইন কারো জন্যে ভিন্ন ভিন্ন ধারায় প্রনীত হয়না বা হয়নি। আইনের চোখে এবং বিচারের কাঠগড়ায় কে আলেম, কে জালেম, কে নাস্তিক, কে আস্তিক, কে রাজনতিবীদ কে সাধারন মানুষ বিবেচ্য নয়–বিবেচ্য তাঁর অপরাধ। রাষ্ট্র পরিচালনায় অধিষ্ঠিত কোন একক ব্যাক্তি, সংস্থা, গোষ্টি বা রাজনৈতিক দল সরকারআরো পড়ুন