প্রাণের ৭১

সোমবার, অক্টোবর ১২th, ২০২০

 

যুব মহিলা লীগ থেকে বহিষ্কৃত পাপিয়া দম্পতির ২৭বছরের জেল

মোহাম্মদ হাসানঃ যুব মহিলা লীগ থেকে বহিষ্কৃত শামিমা নূর পাপিয়া এবং তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরীকে অস্ত্র আইনে ২৭ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। পাবলিক প্রসিকিউটর আবু আব্দুল্লাহ সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, তাদের বাড়িতে অস্ত্র পাওয়া গেছে এবং এই আইনে সবোর্চ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। কিন্তু তারা দুইজনই একই পরিবারের সদস্য এবং পাপিয়া একজন নারী —-এই দুই বিবেচনায় আদালত দণ্ড কমিয়ে ২০ বছর এবং সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে। এর মধ্যে অস্ত্র আইনের ১৯ এর ‘এ’ ধারায় অবৈধ অস্ত্র রাখার দায়ে পাপিয়া ও সুমনকে ২০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এবং ১৯আরো পড়ুন


ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড,জাতির প্রত্যাশা পূরণ,মন্ত্রীসভাকে সাধুবাদ:মোহাম্মদ হাসান

ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে সংশোধিত ‘নারী ও শিশুনির্যাতন দমন আইন, ২০০০’ এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছেন মন্ত্রীসভা। সরকারের এমন সিদ্ধান্তে জাতির প্রত্যাশা পূরণ হলো জানিয়ে সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও মন্ত্রীসভাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সাংবাদিক ও কলামিস্ট মোহাম্মদ হাসান। তিনি সংবাদ মাধ্যমে প্রেরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, দেশে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে গত কিছুদিন মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো। তাঁদের অনুষ্ঠিত ওই সমাবেশগুলো থেকে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান কার্যকর করার দাবি জানানো হয়েছে সরকারকে। আজ ১২ অক্টোবর সোমবারআরো পড়ুন


ধর্ষণের শাস্তি ফাঁসি মন্ত্রীসভায় অনুমোদন কাল রাষ্ট্রপতির অধ্যাদেশ জারি

মোহাম্মদ হাসানঃ ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে সংশোধিত ‘নারী ও শিশুনির্যাতন দমন আইন, ২০০০’ এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছেন মন্ত্রীসভা। আজ ১২ অক্টোবর সোমবার প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রীসভা বৈঠকে এ আইনের খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছেন। যা আগামীকাল মহামান্য রাষ্টপতির অধ্যাদেশ জারি হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সংবাদ মাধ্যমকে জানান, ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড করে সংশোধিত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ২০০০ এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছেন মন্ত্রিসভা। নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নারী নির্যাতনের পরই দেশব্যাপী ধর্ষণ ও নারী নিপীড়ন বিরোধী বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। সেসব আন্দোলন থেকে ধর্ষণেরআরো পড়ুন