প্রাণের ৭১

বুধবার, জুলাই ১৭th, ২০১৯

 

A গ্রেড পেয়েছেন নুসরাত !

নুসরাত জাহান রাফির আলিম পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তোলার পর মাদ্রাসা অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলা ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের হুমকি-ধমকি মাথায় নিয়ে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে দুটি পরীক্ষায় অংশ নিতে পেরেছিলেন নুসরাত। এরপরই তাকে হত্যা করা হয়।   ফলাফল বিবরণীতে দেখা যায়, প্রথম পরীক্ষা কোরআন মাজিদ (২০১) এবং হাদিস ও উসুলে হাদিস (২০২) পরীক্ষায় নুসরাত জাহান রাফি ‘এ’ গ্রেড পেয়েছেন। বাকি পরীক্ষায় আর অংশ নিতে পারেননি নুসরাত। এ কারণে সব মিলিয়ে ‘অকৃতকার্য’ ফল আসে নুসরাতের।   সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা থেকে এবার আলিম পরীক্ষায় নুসরাতসহ ১৭৫ শিক্ষার্থীআরো পড়ুন


০০৭ বন্ডের বাকি সদস্যদের বাঁচাতে মিন্নির গল্প শুনতে কান পরিষ্কার রাখুন।

রিফাত হত্যাকান্ডে মিন্নিকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ। এর আগে গ্রেপ্তারের দাবিতে বরগুনা প্রেস ক্লাবের সামনে ‘সর্বস্তরের জনগণ’ ব্যানারে মানববন্ধন করা হয়েছে, তাতে স্থানীয় সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর ছেলে জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সুনাম দেবনাথও ছিলেন।   এই হত্যাকাণ্ডের অন্য দুই প্রধান আসামি দুই ভাই রিফাত ফরাজী ও রিশান ফরাজী স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেনের ভায়রার ছেলে।   এরপরে বুঝতে বাকি থাকার কথা নয়, কারা বরগুনায় ০০৭ নয়ন বন্ড তৈরী করেছে?   মিন্নির সাথে নয়নের সম্পর্ক নিয়ে এখন যা আসবে পুরোটাই একতরফাআরো পড়ুন


বাংলাদেশে চট্টগ্রামের মিরসরাইতে মাদ্রাসার ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার।

মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ থানাধীন করেরহাট থেকে শামিনা আক্তার ময়না (১৯) নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করেছে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ।   আজ (১৭ই জুলাই ) বুধবার সকালে করেরহাটের ঘেড়ামারা (সাইবেনিরখিল) সিপি বাংলাদেশ কোং  সংলগ্ন  ইলিয়াছের বাড়ি থেকে শিক্ষার্থী শামিনার মরদেহ উদ্ধার করে জোরারগঞ্জ থানায় নিয়ে আসে।   নিহত শামিনা আক্তার ময়না করেরহাট গণিয়াতুল উলুম হোসাইনিয়া মাদ্রাসার আলিম ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী।   নিহত শামিনা আক্তার ময়না করেরহাটের ৪নং ওয়ার্ড ঘেড়ামারা সাইবেনিরখিল এলাকার ইলিয়াছ মিয়ার মেয়ে। দুই ভাই তিন বোনের মধ্যে শামিনা আক্তার ময়না সবার ছোট।   নিহতের বড় বোন নাছিমা আক্তার বলেন,আরো পড়ুন


বরগুনার কোনো সাংবাদিকের মনেই কি এই প্রশ্নগুলো জাগেনি? জাগলে তারা এ নিয়ে প্রশ্ন করেননি কেন?

১.বরগুনার রিফাত শরীফের হত্যাকাণ্ডে তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদের দাবি জানিয়েছেন তার শ্বশুর আবদুল হালিম দুলাল শরীফ। এই দাবিটি তিনি জানিয়েছেন প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে। প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে কুপিয়ে রিফাতকে খুন করা হয়েছে। সেই খুনের আসামিরা গ্রেফতার হয়েছে, পুলিশ তদন্ত করছে।     বরগুনার ওসির ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও পুলিশের তদন্তের উপর আস্থা রেখেই আমরা ফলাফলের অপেক্ষা করছি। ঠিক সেই সময়ে রিফাতের বাবা সংবাদ সম্মেলন করে মিন্নির গ্রেফতার দাবি করলেন কেন?   রিফাত হত্যাকাণ্ডে মিন্নির কোনো ভূমিকা থাকলে সেটি নিশ্চয়ই পুলিশী তদন্তে বেরিয়ে আসবে। মিন্নির সংশ্লিষ্ট তাআরো পড়ুন