Main Menu

কাদিয়ানীদের হুমকি দিলেন হেপাজতে ইসলাম।

পঞ্চগড় জেলায় আগামী ২২, ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য কাদিয়ানীদের ইজতেমার আয়োজন ও কার্যক্রম বন্ধে আলটিমেটাম দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। ওই ইজতেমা বন্ধ করা না হলে পঞ্চগড় অভিমুখে লংমার্চসহ আরও কঠিন কর্মসূচি ঘোষণাও দিয়েছে তারা।

বুধবার বেলা সোয়া ১১টায় হাটহাজারী মাদ্রাসায় হেফাজতে ইসলামের আমিরের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে হেফাজত নেতারা এসব কথা করেন।

হেফাজত আমির আল্লামা শফী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আহমদিয়া মুসলিম জামাত’ তথা কাদিয়ানীরা সরকারিভাবে সংখ্যালঘু। কাদিয়ানীরা মুসলিম নয়, তারা কাফের। তাদের অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে। আমাদের এ দাবিটি হেফাজতের ১৩ দফার মধ্যে অন্যতম। আর কাদিয়ানীরা শুধু ইসলামের দুশমন নয়, ওরা দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের জন্যও চরম হুমকি। তাই অনতিবিলম্বে জাতীয় সংসদে আইন পাস করে তাদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, যারা কাদিয়ানীদের মুসলমান বলবে তারাও বেইমান। তাদের ইমান থাকবে না। তাই সরকারের প্রতি কাদিয়ানীদের ইজতেমা বন্ধ ও সরকারিভাবে কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণার জন্য এ সাংবাদিক সম্মেলন থেকে জোর দাবি জানাচ্ছি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, মির্জা গোলাম আহমদ কাদিয়ানী আগাগোড়া ইংরেজদের দালাল। তিনি অজু ছাড়া নামাজের ইমামতি করতেন। আমাদের ১৩ দফা দাবির মধ্যে কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণার জোর দাবি ছিল। সরকারকে আমরা লিখিত আকারে তা জমা দিয়েছি। তাই অনতিবিলম্বে তাদের তথাকথিত ইজতেমাসহ বাংলাদেশে তাদের কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে এবং জাতীয় সংসদে আইন পাস করে তাদেরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব আল্লামা লোকমান হাকিম, মাওলানা সলিম উল্ল্যাহ, মাওলানা নোমানী মেখলি, মাওলানা ইসহাক নূর, মাওলানা মঈনুদ্দিন রুহি, মাওলানা নুরুল ইসলাম, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা আশরাফ আলী নিজামপুরী, মাওলানা রফিক নানুপুরী, মাওলানা নাসির উদ্দিন মুনির, মাওলানা হাফেজ ফয়সাল, মাওলানা মীর ইদ্রিস, মাওলানা আলমগীর, সরোয়ার কামাল ও মাওলানা আহসান উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*